মানিকগঞ্জে সরকারি হাসপাতালে ডিউটি ফাঁকি দিয়ে প্রাইভেটে ব্যস্ত ডাক্তার এমদাদুল হক সোনারগাঁয়ে জালিয়াতির মামলায় মোঃ মজিবুর রহমান গ্রেফতার রূপগঞ্জে অবৈধ গ্যাসলাইন বিস্ফোরনে জ্বলসে গেলো ভাড়াটিয়া আগামী কয়েকদিনের মধ্যে তেল সংকট কেটে যাবে: বাণিজ্যমন্ত্রী ফুলপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় বাসের এক হেলপার নিহত, আহত শিশু সহ বেশকিছু যাত্রী সোনারগাঁয়ে আরমান হত্যার সাত বছর পেরিয়েও বিচার না পেয়ে সংবাদ সম্মেলন বড়াইগ্রামের পদ্মবিলের সৌন্দর্য নষ্ট করে চলছে পুকুর খনন আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টির ভূমিকা থাকবে গুরুত্বপূর্ণ: লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি  দেবরকে গলা টিপেই মে’রে ফেললেন ভাবি! ফুলপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা নিহত

বরগুনায় লঞ্চ অগ্নিকান্ডে তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন জমা ; দায়ী ব্যক্তিদের চিহিৃত

বিশেষ প্রতিনিধি, ঢাকা: মাঝ নদীতে অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডে বহু হতাহতের ঘটনায় গঠিত একটি তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ভবিষ্যতে এধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে বেশ কিছু সুপারিশ করা হয়েছে। গতকাল সোমবার রাতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়েছে বলে গনমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন সচিব তিনি বলেছেন, তারা দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করেছে। সেই সঙ্গে তারা কিছু সুপারিশ করেছে।

তিনি জানান, ভবিষ্যতে এই ধরনের দুর্ঘটনা যাতে না ঘটে, সতর্কতামূলক বিষয়গুলোর ব্যাপারে আগেভাগে যাত্রীদের জানানো, চাইলেই যেন যন্ত্রাংশ পরিবর্তন করা না যায়, ইত্যাদি বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করা হয়েছে। এখনি তদন্ত প্রতিবেদনের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে জানাতে চাননি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন কর্মকর্তা বলেছেন, অগ্নিকাণ্ডে হতাহতের জন্য লঞ্চটির সাথে সংশ্লিষ্টদের দায়ী করে প্রতিবেদন দিয়েছে তদন্ত কমিটি।

ওই ঘটনার পেছনে সদরঘাটে কর্মরত নৌপরিবহন অধিদপ্তর ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তাদের দায়িত্বে পালনেও চরম অবহেলা ছিল বলেও প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। ক্রটিপূর্ণ ইঞ্জিনের কারণে লঞ্চটিতে আগুন লাগে বলে তদন্ত কমিটি দেখতে পেয়েছে। বিশেষ করে লঞ্চের ইঞ্জিনে ক্রুটি দেখতে পাওয়ার পরেও লঞ্চের কর্মীরা কোন ব্যবস্থা নেননি। আগুন লাগার পরে সেটি নেভাতেও কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

তদন্ত কমিটি দেখতে পেয়েছে, নৌপরিবহন অধিদপ্তরের অনুমতি না নিয়ে লঞ্চের মালিক ইঞ্জিন পরিবর্তন করেছেন। তদন্ত প্রতিবেদনে ২৫টি সুপারিশ করা হয়েছে। এর মধ্যে রোটেশন পদ্ধতিতে লঞ্চ চলাচল বন্ধ, লঞ্চ ছাড়ার আগে যথাযথভাবে পরিদর্শন, ঘন ঘন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা, লঞ্চের কর্মীদের প্রশিক্ষণের বিষয় উল্লেখ রয়েছে। ২৩শে ডিসেম্বর রাতে ঢাকা থেকে বরগুনা যাওয়ার পথে অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ৪৭ জনের মৃত্যু হয়।

এখনো কয়েকজন নিখোঁজ রয়েছেন। দগ্ধ অনেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ওই ঘটনা খতিয়ে দেখা ও দায়ীদের চিহ্নিত করতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছিল নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়। লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নৌ আদালতে করা মামলায় তিন মালিক ও চার মাস্টার- চালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন....
© All rights reserved  2022 DesherGarjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar