মানিকগঞ্জে সরকারি হাসপাতালে ডিউটি ফাঁকি দিয়ে প্রাইভেটে ব্যস্ত ডাক্তার এমদাদুল হক সোনারগাঁয়ে জালিয়াতির মামলায় মোঃ মজিবুর রহমান গ্রেফতার রূপগঞ্জে অবৈধ গ্যাসলাইন বিস্ফোরনে জ্বলসে গেলো ভাড়াটিয়া আগামী কয়েকদিনের মধ্যে তেল সংকট কেটে যাবে: বাণিজ্যমন্ত্রী ফুলপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় বাসের এক হেলপার নিহত, আহত শিশু সহ বেশকিছু যাত্রী সোনারগাঁয়ে আরমান হত্যার সাত বছর পেরিয়েও বিচার না পেয়ে সংবাদ সম্মেলন বড়াইগ্রামের পদ্মবিলের সৌন্দর্য নষ্ট করে চলছে পুকুর খনন আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টির ভূমিকা থাকবে গুরুত্বপূর্ণ: লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি  দেবরকে গলা টিপেই মে’রে ফেললেন ভাবি! ফুলপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা নিহত

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরে রয়েছে ২০৯ প্রজাতির বন্যপ্রাণী!

গর্জন ডেস্ক: সাম্প্রতিক এক গবেষণা বলছে, বাংলাদেশের রাজধানী ইট-কাঠ-কংক্রিটের নগরী ঢাকাতে এখনও ২০৯ প্রজাতির বন্যপ্রাণী টিকে আছে, যাদের অনেকগুলোই এখন বিরল কিংবা বিপন্ন প্রায়। গত কয়েক দশকে ঢাকায় পাল্লা দিয়ে বেড়ে যাওয়া আকাশচুম্বী ভবন, আর শহরের অলিগলি কিংবা পাশ ঘেঁষে থাকা গাছপালা, ঝোপঝাড়, নদী-নালা, খাল এবং উন্মুক্ত জমি কমে যাওয়ার পরও শহরে হঠাৎই ডেকে উঠতে পারে অচেনা ভীমরাজ পাখি। বুড়িগঙ্গা বা তুরাগ নদীতে এখনও হঠাৎই ভেসে উঠতে পারে দেশি শুশুক।

অথবা শহরের ভেতরকারই কোন জলাশয় থেকে লাফিয়ে ডাঙায় উঠতে পারে ঝিঁঝিঁ ব্যাঙয়ের মত অচিন প্রাণী। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের চালানো এক গবেষণায় পাওয়া গেছে এসব তথ্য। তবে, যেসব প্রাণী এখনও টিকে আছে, তাদের সংরক্ষণের ব্যবস্থা না নিলে অচিরেই হারিয়ে যাবে তারাও, এমন আশংকাও রয়েছে।

২০১৫ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত তিন বছরে ঢাকা শহরের বন্যপ্রাণী চিহ্নিত করা এবং সমীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে জানা যাচ্ছে ঢাকায় মোট ২০৯ জাতের বন্যপ্রাণীর বাস।ঢাকা শহরের রমনা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা, জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান, দিয়াবাড়ী, উত্তরা, খিলক্ষেত, বুড়িগঙ্গা এবং তুরাগ নদীসহ মোট ২২টি এলাকা এবং এর আশপাশের জলাশয়, বনভূমিতে এই গবেষণাটি চালানো হয়েছে। এতে দেখা যাচ্ছে, ২০৯ প্রজাতির বন্যপ্রাণীর মধ্যে বসন্ত বৌরি, ফিঙে, ছোট ভীমরাজ, সবুজ ঘুঘু পাখিসহ মোট ১৬২ প্রজাতির পাখি রয়েছে ঢাকা শহরে।

গবেষণায় দেখা গেছে, লালবুক টিয়া, চন্দনা ও হীরামনসহ মোট টিয়া পাখি আছে চার প্রজাতির। সবুজ, গেছো ব্যাঙ, কটকটি ব্যাঙ, ঝিঁঝিঁ ব্যাঙ ও ঘড়িয়ালসহ উভচর প্রাণী রয়েছে ১২ প্রজাতির। তক্ষক, গুইসাপ, খৈয়া গোখরা, পদ্মগোখরার মত সরীসৃপ আছে ১৯ প্রজাতির। এছাড়া বানর, শিয়াল, বনবিড়াল, শুশুক বা ডলফিনসহ ১৬ প্রজাতির স্তন্যপায়ী প্রাণী চিহ্নিত করেছে গবেষণা দল। সুন্ধি কাছিম, তরাকরি কাইট্টা প্রজাতির কচ্ছপসহ কয়েক প্রজাতির কচ্ছপ আছে।

কিন্তু প্রজননের পরিবেশের অভাবে বাড়ছে না বন্যপ্রাণীর সংখ্যা। গবেষণায় দেখা গেছে পাখির মধ্যে এখনও বিপন্ন প্রজাতি তেমন নেই। কিন্তু স্তন্যপায়ী প্রাণীর ক্ষেত্রে বিপন্ন প্রজাতি আছে কয়েকটি। এর মধ্যে তুরাগ ও বুড়িগঙ্গায় থাকা দেশি জাতের শুশুক বা ডলফিন এবং বানর আছে সবচেয়ে ঝুঁকিতে।

প্রতিকূল পরিবেশে ঢাকায় বাস করা এসব প্রাণীর বড় অংশটি এখন অস্তিত্বের সংকটে রয়েছে। কিন্তু ঢাকার পরিবেশ থেকে সবুজ যেভাবে কমছে তাতে সেদিন খুব দূরে নয় যখন এসব প্রাণী হারিয়ে যাবে। তথ্যসূত্র: বিবিসি

খবরটি শেয়ার করুন....
© All rights reserved  2022 DesherGarjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar