মানিকগঞ্জে সরকারি হাসপাতালে ডিউটি ফাঁকি দিয়ে প্রাইভেটে ব্যস্ত ডাক্তার এমদাদুল হক সোনারগাঁয়ে জালিয়াতির মামলায় মোঃ মজিবুর রহমান গ্রেফতার রূপগঞ্জে অবৈধ গ্যাসলাইন বিস্ফোরনে জ্বলসে গেলো ভাড়াটিয়া আগামী কয়েকদিনের মধ্যে তেল সংকট কেটে যাবে: বাণিজ্যমন্ত্রী ফুলপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় বাসের এক হেলপার নিহত, আহত শিশু সহ বেশকিছু যাত্রী সোনারগাঁয়ে আরমান হত্যার সাত বছর পেরিয়েও বিচার না পেয়ে সংবাদ সম্মেলন বড়াইগ্রামের পদ্মবিলের সৌন্দর্য নষ্ট করে চলছে পুকুর খনন আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টির ভূমিকা থাকবে গুরুত্বপূর্ণ: লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি  দেবরকে গলা টিপেই মে’রে ফেললেন ভাবি! ফুলপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতা নিহত

কি করলে আমি সুখ খুঁজে পাবো

গর্জন ডেস্ক: সবাই সুখ নামের অচিন পাখির খোঁজে ছোটেন। অথচ তার পরেও সুখী হতে পারেন না। সত্যি কথা বলতে কি, সুখের সন্ধান করে লাভ নেই। পৃথিবীর সব মানুষের ভিতরেই সুখ থাকে। তবে নিজের ভিতরের সুখী মানুষটাকে বের করতে আনতে না শিখলে প্রকৃত সুখ পাওয়া যায় না। এবারে আসুন আমি আপনাকে স্থায়ী সুখের অচিনপুরে পৌঁছে দিই।

মনোবিজ্ঞানীরা দেখেছেন, অন্যকে খুশি করার চেষ্টা করে প্রকৃত স্থায়ী সুখ পাওয়া যায়। ভেবে দেখুন, আপনি আজ পর্যন্ত যত সুখী মানুষ দেখেছেন তাঁরা অন্যকে খুশি করতে পছন্দ করতেন কিনা। অন্যেরা আপনার অসুখী হওয়ার কারণ হলেও আশ্চর্যজনক ভাবে তাঁদেরকে সুখী রেখেই আপনি নিজে সুখী হতে পারেন। অন্যের দুঃখ শেয়ার করে অন্যকে স্বান্তনা দিয়েও আপনি সুখী হতে পারেন। তবে শুধু অন্যকে সুখী রাখলেই সুখী হতে পারবেন না। এর জন্য ভারসাম্যও থাকা দরকার।

অন্যের সুখের কথা যেমন ভাবতে হবে, তেমনি নিজের সুখের কথাও মনে রাখতে হবে। আর তাহলে জীবন নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে পারবেন। সুখী হতে পারবেন। ভারতীয় দর্শনও কিন্তু এমনটাই বলে। সেখানে বলা হয়েছে জীবনের উদ্দেশ্য সুখী হওয়া নয় বরং জীবনের উদ্দেশ্য হওয়া উচিত অপরকে সুখী করা। একই রকম ভাবে পৃথিবীতে দান করে কেউ কখনো গরীব হয়নি।

বরং গরীব মানসিকতার মানুষেরাই কখনও দান করতে পারেননি। পৃথিবীতে সেই মানুষেরাই সবচেয়ে বেশী সুখের কাছাকাছি যেতে পেরেছেন, যাঁরা নিজেদেরকে আর্ত-মানবতার সেবায় বিলিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছেন। সুখের চোদ্দ কাহন সুখের মনস্তত্ত্ব অথবা পজিটিভ সাইকোলজি নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে বিজ্ঞানীরা যে ১৪টি গ্রাউন্ড রুলের কথা বলেছেন।

১) আরও সক্রিয় হন এবং নিজেকে ব্যস্ত রাখুন। ২) উৎপাদনশীল হন এবং গুরুত্বপূর্ণ কাজ করুন। ৩) ভিত্তিহিন ভাবনায় নিজেকে স্ট্রেসড রাখবেন না। ৪) প্রত্যাশা ও উচ্চাকাঙ্খা কমান। ৫) স্বাস্থ্যকর ভাবে বাঁচুন।

৬) নিজের মতো হন। ৭) নেতিবাচক উদ্যম ও সমস্যা সরিয়ে ফেলুন। ৮) ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় রাখুন (একেই সুখার্জনের শ্রেষ্ঠ উপায় বলে মনে করা হয়। ৯) সামাজিকতায় বেশি সময় দিন। ১০) ইতিবাচক ও আশাবাদী চিন্তায় মনোনিবেশ করুন।

১১) বর্হিগামী ও সামাজিক চরিত্র হয়ে উঠতে চেষ্টা করুন। ১২) কোনও কিছু করে ওঠার জন্য আপনার গঠনমূলক দক্ষতা ও পরিকল্পনার বিকাশ ঘটান। ১৩) অন্যকে সাহায্য করুন। ১৪) আপনার অগ্রাধিকার তালিকায় সুখকে একেবারে প্রথমে রাখুন।

খবরটি শেয়ার করুন....
© All rights reserved  2022 DesherGarjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar